স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামী পলাতক

0
32
নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতাঃ নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় এক গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দাম্পত্য কলহের জের ধরে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর থেকে গৃহবধূর স্বামী পলাতক। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত একটার দিকে উপজেলার গোপালদী পৌরসভার উত্তর কলাগাছিয়া এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।
গৃহবধূর নাম সালেহা আক্তার (২৮)। তিনি উপজেলার কলাগাছিয়া এলাকার হাছেন আলীর মেয়ে। গৃহবধূর স্বামীর নাম মোবারক হোসেন।
নিহত সালেহার পরিবারের বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে জানান, উপজেলার উত্তর কলাগাছিয়া এলাকার হাছেন আলীর বাড়িতে তাঁর মেয়ে সালেহা আক্তার স্বামীসহ থাকতেন। তাঁদের সংসারে দুই সন্তান রয়েছে। সালেহা আক্তার দীর্ঘদিন সৌদিপ্রবাসী ছিলেন। গত ঈদুল ফিতরে সালেহা দেশে ফিরে আসেন। বিদেশফেরত টাকা নিয়ে সালেহার সঙ্গে স্বামীর একাধিকবার ঝগড়া হয়। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলছিল। পরিবারটির অভিযোগ, গতকাল রাতে খাবার খেয়ে সালেহা ঘুমিয়ে পড়লে স্বামী মোবারক ছুরি দিয়ে তাঁকে গলা কেটে হত্যা করেন। সালেহার গোঙানি শুনে ছেলে মেহেদি হাসান (৯) ও মেয়ে সুমাইয়া (১১) ঘুম থেকে জেগে উঠে চিৎকার দেয়।
সালেহার বাবা হাছেন আলী তাঁর মেয়েকে হত্যার জন্য জামাতা মোবারক হোসেনকে দায়ী করে বিচার দাবি করেন।
ওসি নজরুল ইসলাম জানান, রাতে ছেলেমেয়ের চিৎকারে বাড়ির লোকজন ঘরে গিয়ে লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। পলাতক স্বামী মোবারককে আটকের চেষ্টা চলছে। তাঁকে আটক করতে পারলেই হত্যার রহস্য উদ্‌ঘাটিত হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

LEAVE A REPLY