জিপিএ-৫ পাওয়া জুমারাকে শিক্ষা উপকরণ ও নগদ অর্থ উপহার দিলেন কাতার প্রবাসী তাহের

692
  • বিডিজাগরণ২৪.কম এর নিউজ দেখে সব বিষয়ে জিপিএ-৫ (গোল্ডেন এ প্লাস) পাওয়া মেধাবী শিক্ষার্থী জুমারা আক্তার কে শিক্ষা সামগ্রী ও নগদ টাকা উপহার দিয়েছেন কাতার প্রবাসী তৌফিকুর রহমান তাহের
হাসান আল মাহমুদ রাজুঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় গোল্ডেন এ প্লাস পাওয়া আলী আমজদ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের বিজ্ঞান শাখার মেধাবী শিক্ষার্থী জুমারা কে  ভালো ফলাফল অর্জন করায় কাতার প্রবাসী তৌফিকুর রহমান তাহের শিক্ষা উপকরণ নগদ টাকা উপহার দিয়েছেন।
পৃথিমপাশা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাসুদ রানা আব্বাছের উপস্থিতিত্বে আজ ৪ জুন বিকেলে জুমারার বাড়িতে জুমারা সহ তাঁর মায়ের হাতে এই উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন  সাংবাদিক হাসান আল মাহমুদ রাজু, তৌফিকুর রহমান তাহেরের ছোট ভাই তায়েফুর রহমান তায়েফ।
মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার আলী আমজদ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ থেকে এবার ২০২০ সালের এস এসসি পরিক্ষায় বিজ্ঞান শাখা থেকে দরিদ্রতাকে পেছনে ফেলে সব বিষয়ে জিপিএ-৫ (গোল্ডেন এ প্লাস) পায় জুমারা।
জুমারা কুলাউড়া উপজেলার পৃথিম পাশা ইউনিয়নের পৃথিম পাশা গ্রামের মোঃ শায়ের উদ্দিন ও ইয়ারুন বেগমের বড় মেয়ে। জুমরারা দুই বোন। তাঁর ছোট বোন মারিয়াম জান্নাত এবার অষ্টম শ্রেনীতে আলী আমজদ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে পড়ছে। জুমারার বাবা একজন কৃষক। বাবা, মা ও দুই বোন মিলে ৪ সদস্যের পরিবার জুমারাদের।
কাতার প্রবাসী তৌফিকুর রহমান তাহের রাউৎগাও ইউনিয়নের রাউৎগাও গ্রামের মোঃ ছানোয়ার আলী ছেলে। এছাড়াও তাহের করোনাকালীন পরিস্থিতিতে হতদরিদ্র মানুষের মধ্যে কয়েক দফায় খাদ্য সহায়তা বিতরণ করছেন। তাঁর বাবা বাংলাদেশ রেলওয়ে  কুলাউড়া জংশনের কর্মকর্তা ছিলেন।
পৃথিমপাশা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাসুদ রানা আব্বাছ বলেন তিনি প্রথমে অভিনন্দন জানান জুমারা কে। এই কঠিন সময়ে জুমারা আমাদের কে ভালো একটি ফলাফল উপহার দিয়েছে জুমারা। তাঁর অতি দরিদ্র পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। পাশাপাশি কাতার প্রবাসী তৌফিকুর রহমান তাহের এই শিক্ষা সামগ্রী ও নগদ টাকা উপহার দিয়ে মহত্বের পরিচয় দেখিয়েছে। তাকে পৃথিমপাশা ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। এবং বিশেষ করে ধন্যবাদ জানাই বিডিজাগরণ২৪.কম কে নিউজ টি প্রচার করার জন্য।
কাতার প্রবাসী তৌফিকুর রহমান তাহের বলেন শিক্ষা সমাজে আলো ছড়ায়। সুশিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড। জুমারা আক্তার সব বিষয়ে জিপিএ-৫ পেয়ে তাঁর মেধা ও সদিচ্ছার পরিচয় দিয়েছে। ভালো ফলাফলের পুরস্কার হিসেবে তাকে সামান্য উপহার দিয়েছি। আমি তাঁর আগামী শিক্ষা জীবনের সফলতা কামনা করি।