মৌলভীবাজারে করোনা প্রতিষেধক টিকা প্রথমে গ্রহণ করলেন নেছার আহমদ এমপি

265
করোন ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা নিচ্ছেন সাংসদ নেছার আহমদ।
বিশ্বের মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকাদান কর্মসূচি সাড়া দেশের ন্যায় মৌলভীবাজারেও আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছে। টিকা গ্রহণ কর্মসূচির উদ্বোধন করে মৌলভীবাজারের প্রথম ব্যক্তি হিসেবে টিকা গ্রহণ করেন সাংসদ নেছার আহমদ এমপি।
আজ রোববার ৭ ফেব্রয়ারি সকালে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে করোনা ভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করে জেলার প্রথম ব্যাক্তি হিসেবে টিকা গ্রহণ করেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ এমপি। এরপর টিকা গ্রহণ করেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, সিভিল সার্জন ডাক্তার চৌধুরী জালাল উদ্দিন মুর্শেদ, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি এমএ সালাম, সাবেক সভাপতি আব্দুল হামিদ মাহবুব, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন মাসুদ সহ ডাক্তার, পুলিশ, সাংবাদিক, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জ্যেষ্ঠ নাগরিকসহ ৮১৬ জন।
টিকাদান কর্মসূচি চলবে সরকারি ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত।
সিভিল সার্জন ডাক্তার চৌধুরী জালাল উদ্দিন মুর্শেদ জানান আজ টিকা নিয়েছেন ৪২৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ ২৬৪ জন আর মহিলা ১৬৩ জন। সদর হাসপাতাল ২০৪, রাজনগর ৩০, কুলাউড়া ২০, বড়লেখা ৬৪, কমলগঞ্জ ২০, জুড়ী ১০ এবং শ্রীমঙ্গল ৭৯ জন।
টিকা গ্রহণের জন্য গতকাল পর্যন্ত রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করেছেন ৫ হাজার ৭৫৪ জন। এর মধ্যে আজ টিকা গ্রহণ করার কথা ছিলো ৮১৬ জন। মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ২৯৭ জন, রাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫০জন, কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩৯জন, বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০০জন, শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০০ জন, জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩০ জন এবং কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০০জন।
করোনা ভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করছেন সাংসদ নেছার আহমদ।
টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সিভিল সার্জন ডাঃ চৌধুরী জালাল উদ্দীন মোর্শেদ, তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ পার্থ সারথি দত্ত কানুনগো, উপপরিচালক ডা: বিনেন্দু ভৌমিক, আবাসিক মেডিকেল অফিসার আহমেদ ফয়সাল জামানসহ অন্যান্যরা।
করোনা টিকা প্রদানের জন্য সদর হাসপাতালে ৮টি বুথ ও প্রতিটি উপজেলায় থাকবে ৩টি করে বুথ খোলা হয়েছে।